মৃত্যুর অপার থেকে বলছি

আমি মৃত্যুর অপার থেকে বলছি,

আমি বলছি মোর প্রিয় উত্তরসূরীদের,

যাদের রেখে এসেছি ধরণীর বুকে

যারা এখনো করেনি গ্রহণ মৃত্যু স্বাদ।

 

যারা জমীনের পরে হাটছে বুক ফুলিয়ে,

বিশাল ভপুওয়ালা তনু হেলিয়ে দুলিয়ে।

যারা এখনো চলছে শংকাহীন ডেম্পকেয়ার,

আমি বলছি তাদের করতে হুশিয়ার ,

আমি বলছি মৃত্যুর অপার থেকে।

 

আমি মৃত্যুর অপার থেকে বলছি,

বলছি সে সব ভাবনাহীন বনি আদমেরে,

যাদের চলার পথ নয় সিরাতাল মুস্তাকিম।

যাদের চলা, আচার আচরণে হয় মনে,

ওরাতো মুসাফির নয় বরং পাক্কা মুকী¡ম।

যারা করেনা লড়াই শাশ্বত পথ-আল্লাহ্র পথে,

ওরা লড়াকু,ওরা সৈনিক শয়তান তাগুতের,

আমি তাদেরই বলছি মৃত্যুর অপার থেকে।

 

আমি মৃত্যুর অপার থেকে বলছি,

জাহান্নামের ভয়ংকর অগ্নিক‚ন্ড হতে বলছি,

আযাবুন আলীমে নিষ্পেষিত হয়ে বলছি।

আমি সেই ভয়াবহ আযাবের কথা বলছি-

যে আযাবের শুরু আছে নেই শেষ,

যার সুরত-হাল না দেখে বুঝা মুশকিল,

যাতে প্রবেশে বদলে গেছি হালফিল।

 

ওখানের পরিবেশ বড় বিভৎস করুণ,

ওখানের অধিবাসীরা বড়ই নির্দয়,নিদারুণ।

ওরা পাষান,দৃঢ়চিত্ত, ভাবনাহীন,

তাদের রবের নির্দেশ পালনরত, শংকাহীন।

ওরা অন্ধ, ওরা বধির, অনুভূতিহীন।

ওদের ভয়ংকর আচরণের কথা শুনেছি আমি,

শুনেছি ধরণীতে তখন, কিন্তু জাগিনি আমি,

আমি বলছি-বলছি মৃত্যুর অপার থেকে।

 

আমি মৃত্যুর অপার থেকে বলছি-

দিচ্ছি সূসংবাদ সেই চিরন্তন ব্যবসার।

হে উত্তরসূরী ! এব্যবসা তোমাদের নাযাত দেবে,

দেবে মুক্তি আমার ভয়াবহ পরিণতি হতে।

 

আমি সেই ব্যবসার কথা বলছি,

আল্লাহতে ঈমান এবং রাসূলে-

আর জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহ্ যার ক্যাপিট্যাল।

জান-মাল উৎসর্গের তিজারাত-কারবার,

ভোগ নয়, ত্যাগ-ত্যাগ এবং ত্যাগের সমাহার।

 

এ ব্যবসার ব্যবসায়ী যারা এসেছে ওখানে,

তাদের সুখ, আরাম আর পুরস্কার দেখে দেখে বলছি,

কৃত কর্মের সাজা ভোগ করতে করতে বলছি,

জাহান্নামের তপ্ত আগুনে জ্বলে পুড়ে বলছি,

আমি মোর উত্তরসূরীদের হুশিয়ার করতে বলছি,

আমি মৃত্যুর অপার থেকে নির্যাতিত হয়ে বলছি,

আমি মৃত্যুর অপার থেকে বলছি।।

 

(২০০২ সালে লেখা কবিতা)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here