এখন কাতার সময়ঃ রাত ৮:২৪, আজঃ  শনিবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩রা আশ্বিন ১৪২৮

এখন কাতার সময়ঃ রাত ৮:২৪, আজঃ  শনিবার, ১৮ই সেপ্টেম্বর ২০২১, ৩রা আশ্বিন ১৪২৮

আমার লিখা আর্টিক্যাল লেখালেখি

জামায়াতে ইসলামী ও অন্যান্য ইসলামী দলের মধ্যে পার্থক্য

জামায়াতে ইসলামী  অন্যন্য ইসলামী দলের মাঝে রয়েছে নানাবিধ পার্থক্যআমার বিবেচনায় নিম্নোক্ত পার্থক্য গুলো বিশেষ ভাব উল্লেখ যোগ্যঃ

ক. জামায়াতে ইসলামী কোন ব্যক্তির একক নির্দেশে পরিচালিক হয়না। অন্যান্য ইসলামী দলের প্রায় সবক’টি কোন না কোন ব্যক্তির নেতৃত্বে এবং একেকজন বিশেষ ব্যক্তিকে কেন্দ্র করে পরিচালিত ।

খ. জামায়াতে ইসলামীর নেতৃবৃন্দের সন্তানেরা সংগঠনে কোন বিশেষ মর্যাদার অধিকারী নন। অন্যান্য ইসলামী দলে মূল নেতার সন্তান বা সন্তানেরা বিশেষ মর্যাদার অধিকারী এবং ঐ নেতার অবর্তমানে তার সন্তানেরা প্রায়শই দলের মূল দায়িত্ব পেয়ে থাকেন।

গ. জামায়াতে ইসলামীতে নেতার আনুগত্যের একটি ঐতিহ্য গড়ে উঠেছে, যার কারণে নেতৃবৃন্দ স্বভাবতই স্বতঃস্ফূর্ত মর্যাদার অধিকারী। অন্যান্য ইসলামী দলের সে ঐতিহ্য নেই এবং মূল নেতা ছাড়া প্রায় সবাই-ই সে মর্যাদা পান না।

ঘ. জামায়াতে ইসলামীতে রয়েছে সংস্কার ও সংশোধনের উদ্দেশ্যে একটি সুনির্দিষ্ট ‘মুহাসাবা’ পদ্ধতি। অন্যান্য ইসলামী দলে মুহাসাবার কোন প্রেকটিস নেই।

ঙ. জামায়াতে ইসলামী কেন্দ্র থেকে ‍তৃণমূল অবধি পরিচালিত হয় সর্বস্তরের জনশক্তির পরামর্শের ভিত্তিতে। অন্যান্য ইসলামী সংগঠন পরিচালিত হয় একক নেতৃত্বের নির্দেশে।

চ. জামায়াতে ইসলামীর দায়িত্বশীলেরা সর্বাবস্তায় কোন না কোন ফোরামের নিকট জবাবদিহি করতে দায়বদ্ধ। অন্যান্য ইসলামী দলের দায়িত্বশীলদের জবাবদিহিতার কোন ব্যবস্থা নেই।

ছ. জামায়াতে ইসলামী নেতৃত্ব নির্বাচিত হয় জনশক্তির প্রত্যক্ষ মতামতের ভিত্তিতে, যেখানে কেউ প্রার্থী হন না বা পদের জন্য কেউ প্রত্যাশী হয় না। আর নেতৃত্ব নির্বাচনে কোন কোন ধরণের ক্যানভাস চলে না। অন্যান্য ইসলামী দলে নেতৃত্ব নির্বাচন হয়না। যে ব্যক্তি প্রধান দায়িত্বশীল হন, তিনি প্রায়শই স্থায়ী ভাবে সে পদে আসীন থাকেন। কেবলমাত্র নেতৃত্বের প্রত্যাশার কারণে অন্যান্য ইসলামী দল ভেঙে বিভিন্ন উপদল সৃষ্টি হয়।

জ. জামায়াতে ইসলামীর জনশক্তির মানোন্নয়নের জন্য রয়েছে একটি স্তর বিন্যাস। যার মাধ্যমে একজন মুমিনকে প্রকৃত মুমিন হিসাবে গড়ে উঠতে প্রচেষ্টা চালানো হয়। যা অন্যান্য ইসলামী দলে অনুপস্থিত।

ঝ. জামায়াতে ইসলামী আল্লাহ প্রদত্ত ও রাসূল সা. প্রদর্শিত বিধান অনুযায়ী মানুষের জীবনের প্রতিটি পর্যায়কে পরিচালিত করার লক্ষ্যে একদল লোক তৈরী করছে। ঐ সব লোকের মাধ্যমে দেশের জনগনের মতামতের ভিত্তিতে ইসলামী সমাজ বিনির্মাণ করতে চায়। অন্যান্য ইসলামী দলে লোক গঠনের এ প্রক্রিয়া অনুপস্থিত।

লেখাটি আপনার ভাল লাগলে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

2 COMMENTS

  1. আলহামদুলিল্লাহ,,
    আল্লাহ পাক আপনাকে আরো সুন্দর লেখার জন্য তৌফিক দান করুন,, আপনার জন্য অন্তর থেকে দোয়া করি আল্লাহ পাক আপনাকে ভালো ও সুস্থ রাখুন আর শান্তি দান করুন, আমিন

  2. আলহামদুলিল্লাহ,,
    আল্লাহ পাক আপনাকে আরো সুন্দর লেখার জন্য তৌফিক দান করুন,, আপনার জন্য অন্তর থেকে দোয়া করি আল্লাহ পাক আপনাকে ভালো ও সুস্থ রাখুন আর শান্তি দান করুন, আমিন
    আপনার লেখাগুলো আমি আরো বেশি বেশি পড়ার জন্য চেস্টা করবো ইনশাআল্লাহ

LEAVE A RESPONSE

Your email address will not be published.