কাতারের বাড়ী ওয়ালা এবং নিয়োগকর্তা (কফিল)দের বাসা ভাড়া (আবাসন) আইন মেনে চলার আহবান

0
361
Image processed by CodeCarvings Piczard ### FREE Community Edition ### on 2020-04-02 20:48:25Z | |

কাতারের শ্রম মন্ত্রনালয় গত ১০ দিনের পরিদর্শনে ১,৮৫৫ টি আবাসন আইন লংঘনের সন্ধান পেয়েছে

কাতারের মিনিষ্ট্রি অব এ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ডেভলাপম্যান্ট, লেবার এন্ড সোসাল এ্যাফেয়ার্স (MADLSA) কাতারের প্রতিটি আবাসিক এলাকায় শ্রমিকদের আবাসন পরিদর্শন ক্যাম্পিং শুরু করেছে, যাতে আবাসিক এলাকা সমূহে নির্ধারিত সংখ্যার শ্রমিক রেখে বাকীদেরকে অপসারণ করা যায়।

কাতারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ও মিউনিসিপালটি এন্ড পরিবেশ মন্ত্রনালয়ের সাথে সমন্বয় করে এই পরিদর্শন কার্যক্রম চলছে। ইতিমধ্যে কাতারে ২০১২ সালের ২২ নম্বর আইন এবং ২০১০ সালের ১৫ নম্বর আইনের বিধান সংশোধণ করে পারিবারিক আবাসকি এলাকায় লেবার ক্যাম্প নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ২০১৪ সালে ঘোষিত শ্রম ও সোসাল এ্যাফেয়ার্স বিভাগের ১৮ নম্বর সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নিয়োগকর্তাকে শ্রমিকদের জন্য প্রয়োজনীয় আবাসন সুবিধা নিশ্চিত করতে হয়।

শ্রম মন্ত্রনালয় সেই সিদ্ধান্ত যথাযথ ভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে কি না তা পরীক্ষা করতে ৪১৭টি আবাসন ইউনিট পরিদর্শন করে এবং ১৮৫৫টি বিধি লংঘনের ঘটনা নিবন্ধন করে। যার বেশীর ভাগ ক্ষেত্রে ঐ সব এলাকায় এমন শ্রমিকদের বসবাস করতে দেখা গেছে যারা বিভিন্ন ক্লিনিং কোম্পানী, লিমোজিন সার্ভিস, রেস্টুরেন্ট ও কন্টাকটিং কোম্পানীতে কাজ করছে। (প্রকৃত ব্যাপার হচ্ছে, ঐ শ্রমিকরা প্রকৃত পক্ষে ক্লিনিং কোম্পানী, লিমোজিন সার্ভিস, রেস্টুরেন্ট বা কন্টাকটিং কোম্পনীতে কাজ করেনা। বরং ওরা ঐসব প্রতিষ্ঠানের ভিসায় বা কফালায় রয়েছে এবং তারা তথাকথিত ফ্রী ভিসায় কাতারে অবস্থান করছেন।)

মন্ত্রনালয় পরিচালিত এই পরিদর্শন কার্যক্রম যে সব এলাকায় পরিচালিত হয়েছে, তা হলোঃ নাজমা, মানসুরা, বিন দিরহাম, সালাতা গাদীম, আল রিফা, গানম কাদীম, আসমাখ, আব্দুল্লাহ বিন থানী, মুশেরিব, ফরিক আব্দুল আজীজ, মনতাজাহ এলাকা। পরিদর্শনের সময় কোন বাসায় কতজন থাকার ধারণ ক্ষমতা রয়েছে এবং বর্তমানে কতজন বসবাস করছেন, তা নোটিশ করা হয়েছে।

পরিদর্শনের সময়ে বিধান লংঘনকারী সংশ্লিষ্ট বাসার অধিবাসীদের ১ সপ্তাহের নোটিশ প্রদান করা হয়েছে, যাতে তারা এই সময়ের মধ্যে বিধি অনুযায়ী আবাসন সুবিধা ও সংখ্যা নিশ্চিত করতে পারেন এবং অতিরিক্ত শ্রমিকদের সরিয়ে নিতে পারেন। ১ সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্ট কোম্পানী বা বাড়ীর মালিক প্রয়োজনীয় সংশোধনী আনতে না পারলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

করোনা বিস্তার রোধে গৃহিত সতর্কতা ও প্রতিরোধ মূলক ব্যবস্থা ও সচেতনতা বৃদ্ধির অংশ হিসাবে এই ক্যাম্পিং পরিচালিত হচ্ছে। এই বিষয়ে আইন লংঘনকারীদের বিষয়ে রিপোর্ট প্রদান করার জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগ সমূহে যোগাযোগ করতে অুনরোধ করা হচ্ছে। এজন্য মন্ত্রনালয়ের হটলাইন নম্বর 40280660 তে খবর দেয়া যেতে পারে।

তথ্যসূত্রঃ কাতারের দৈনিক পত্রিকা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here