শ্রদ্ধাভাজন জনাব মাওলানা আবুল হোসাঈন খান। আমাদের কাছে যিনি হাফেজ আবুল হোসাঈন খান নামে পরিচিত বেশী-সেই ছাত্র যামানা থেকে। হাফেজ আনোয়ার হোসাঈন খান আর আবুল হোসাঈন খান একই কাননে দুই ফুল-দুই সহোদর। ছাত্র ইসলামী আন্দোলনে একজন মৌলভী বাজার-হবিগঞ্জ সাংগঠনিক জেলা সভাপতি আরেকজন সিলেট সুনামগঞ্জ সাংগঠনিক জেলা সভাপতি। হাফেজ আবুল হোসাঈন খান-এমন এক পরিবারের সদস্য যার বাবা হাফেজে কুরআন এবং তারা সকল ভাই হাফেজে কুরআন।

ছাত্র জীবনের পর কর্মজীবনের ধারাবাহিকতায় এক পর্যায়ে মৌলভী বাজার জেলার বড়লেখা উপজেলার পাথারিয়া গাংকুল মনসুরিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার আরবী প্রভাষক। সাথে গনমানুষের সংগঠনের উপজেলা সেক্রেটারী। সেই সময়ে আমি ছাত্র আন্দোলনের স্থানীয় সভাপতির দায়িত্ব পালন এবং তার পরে উক্ত মাদ্রাসায় একজন কর্মচারী হিসাবে দায়িত্বপালন। আর সেই সুবাদে তার থেকে আদায় করে নেয়া হয়েছে ছোট ভাই হিসাবে বড় ভাইয়ের সকল ভালবাসা, শিখা হয়েছে হাতে কলমে অনেক কিছু।

তিনি গাংকুল মাদ্রাসা ছেড়ে দূরে এক মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল হয়ে চলে গেলেন। এর পর এক সময়ে ফাড়ি জমালেন লন্ডনে ইস্ট লন্ডন মসজিদের ইমাম হিসাবে দায়িত্ব পালনের উদ্দেশ্যে। সে অনেক আগে কথা, যখন জনাব হাফেজ আবুল হোসাঈন খানের দাড়ি গুলো ছিল কালো চিকচিকে।

সেই আবুল হোসাঈন খান লিখেছেন ‍”মুসলিম ঐক্য ও ইসলামী আন্দোলনঃ ঈমানের দাবীঃ বিচ্ছিন্ন জীবন শয়তানের চাবী”।

বইটিতে আলোচিত হয়েছেঃ – ঐক্যের বিকল্প নেই। – ইসলামী আন্দোলন। – বাঁধা ও তার ফলাফল। – পূর্ণাঙ্গ দাওয়াহ। – মানুষের দায়িত্ব। – উপমহাদেশে ইসলাম। – আন্দোলনের ভবিষ্যত। ইত্যাদি অনেক বিষয় স্ববিস্তারে। 

১০৯ পৃষ্টা এই বই খানা আপনাদের কেমন লাগলো তা জানাবে কমেন্ট বক্সে।

ঈমানের দাবী বই পিডিএফ পড়ার জন্য নিচে ডাইনলোড বটমে ক্লিক করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here